বালিখলা বেড়িবাধ কিশোরগঞ্জ

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

বালিখলা বেড়িবাধ (Balikhola Kishoreganj) দিগন্ত বিস্তৃত হাওরের বুক চিরে বইয়ে চলা রাস্তা। রাস্তার দুই পাশে দিগন্ত বিস্তৃত অথৈ জলরাশি  দেখতে চাইলে আসতে হবে  কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার বালিখোলা বেড়িবাধ। প্রায় ৩ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের সুন্দর উঁচু এই রাস্তাটি চলে গেছে বালিখলা থেকে নিয়ামতপুর পর্যন্ত। করিমগঞ্জ উপজেলার  নিয়ামতপুর থেকে রাস্তাটি তার  অপার সৌন্দর্য মেলে ধরে বয়ে চলেছে হাওরের মাঝ দিয়ে । বেশ উচু হওয়ায় বর্ষায় পানিতে ডুবে যায় না এই রাস্তা। সেই সাথে এখানে রয়েছে  হাওরে নৌ ভ্রমণের সুযোগ সুবিধা। ঢাকা ও কিশোরগঞ্জ জেলার আশপাশ থেকে একদিনেই ঘুরে আসাতে পারবেন। 

বছরের এক এক সময় হাওরের এক এক রূপ ধারন করে । তবে রাস্তার দুইপাশে পানি দেখতে চাইলে আপনাকে অবশ্যয় বর্ষাকালে বালিখলা আসতে হবে। অর্থাৎ জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বালিখলা ভ্রমণ এর সবচে  আদর্শ সময়। সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে  হাওরে পানি কমতে শুরু করে। তাই চেষ্টা কববেন তার আগেই ভরা বর্ষায় বালিখলা ভ্রমনে আসতে।

বালিখলা যাবার উপায়

বালিখলা বেড়িবাধ ভ্রমনে যেতে হলে প্রথমে কিশোরগঞ্জ আসতে হবে।  ঢাকা ও  কিশোরগঞ্জ জেলার আশপাশ থেকে একদিনে বালিখলা  ঘুরে আসতে পারবেন । ঢাকা থেকে বাসে বা  ট্রেনে সহজে কিশোরগঞ্জ এসে  বালিখলা  যেতে পারবেন।

ঢাকা থেকে বাসে যাওয়ার উপায়

ঢাকা থেকে বাসে আসতে চাইলে ঢাকার গোলাপবাগ ও মহাখালী বাস স্ট্যান্ড থেকে অনন্যা সুপার বাস সার্ভিসে আসতে হবে কিশোরগঞ্জে । প্রতিদিন ভোর ৬ টা  থেকে ১৫ মিনিট পর পর বাস ছেড়ে আসে কিশোরগঞ্জে উদ্দেশ্যে। বাসের ভাড়া  নিবে জনপ্রতি ২৭০ থেকে ৩০০ টাকা। দিনে ঘুরে রাতের মধ্যে ফিরে আসতে  চাইলে আপনাকে অবশ্যই সকাল ৭টার আগেই বাসে রওনা দিতে হবে। কিশোরগঞ্জে বাস স্ট্যান্ড  থেকে লোকাল  ১৫ টাকা ভাড়া  বা রিসার্ভ ইজিবাইকে  ১২০ টাকা ভাড়ায়  চলে আসুন একরামপুর সিএনজি স্ট্যান্ডে।

আরও পড়ুনঃ নিকলী হাওর ভ্রমণ গাইড

ট্রেনে যাওয়ার উপায়

ঢাকা থেকে ট্রেনে গিয়ে একদিনে ঘুরে আসতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই আন্তঃনগর এগারো সিন্ধুর প্রভাতী ট্রেনে আসতে হবে। এগারো সিন্ধুর প্রভাতী বুধবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি ৬ দিন কমলাপূর ষ্টেশন থেকে সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে বিমানবন্দর, টঙ্গী, নরসিংদী ও ভৈরব ষ্টেশন হয়ে কিশোরগঞ্জ আসে। শ্রেণী ভেদে ট্রেনের ভাড়া শোভন ১২৫ টাকা, শোভন চেয়ার  ১৫০ টাকা, প্রথম আসন ২০০ টাকা, প্রথম বার্থ ৩০০ টাকা,  স্নিগ্ধা  ২২৮ টাকা, এসি  ৩৪৫ টাকা, এসি বার্থ  ৫১৮ টাকা

ঢাকা টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী (আন্তঃনগর)

এগারসিন্ধুর গোধূলি(৭৪৯) – ছাড়ায় সময় ০৭ঃ১৫ পৌছানোর সময় ১১ঃ১৫ (বুধবার বন্ধ)

এগারসিন্ধুর প্রভাতী(৭৩৭) –  ছাড়ায় সময় ১৮ঃ৪০ পৌছানোর সময় ২২ঃ৪৫ (বুধবার বন্ধ)

কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস(৭৮১) –  ছাড়ায় সময় ১০ঃ৪৫ পৌছানোর সময় ১৫ঃ০০ (বুধবার বন্ধ)

কিশোরগঞ্জ থেকে বালিখলা

বালিখোলার দূরত্ব কিশোরগঞ্জ শহর থেকে  প্রায় ১৯ কিলোমিটার। কিশোরগঞ্জ শহরের একরামপুর সিএনজি স্ট্যান্ড থেকে সিএনজি রিসার্ভ করে ১ থেকে দেড় ঘন্টায় চলে যেতে পারবেন বালিখোলায়। ভাড়া লাগবে ২৫০ – ৩০০ টাকা। এছাড়া লোকাল ওয়েতে যেতে চাইলে একরামপুর থেকে চামটা বন্দর গামী যে কোন সিএনজিতে উঠে নেমে যেতে হবে  নিয়ামতপুর বাজারে। সেখানে থেকে ইজিবাইকে ১ কিলো দূরত্বে বালিখোলা রাস্তায় চলে যেতে পারবেন। ৩ কিলোমিটার রাস্তার শেষ মাথায় বালিখোলা বাজার। সেখানে নৌকা দিয়ে ঘুরে বেড়াতে পারবেন।

কোথায় খাবেন

বালিখোলা বাজারে  মোটামুটি মানের বেশ কিছু  দেশিও খাবার হোটেল আছে। সেখান থেকে খেয়ে নিতে পারবেন। হাওরের তাজা মাছের বিভিন্ন পদ দিয়ে ১০০ থেকে ২০০ টাকা মধ্যে ভরপেট খেয়ে নিতে পারবেন।

থাকার উপায়

বালিখোলা  কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে কাছাকাছি হওয়ায় কিশোরগঞ্জ জেলা শহরে থাকতে পারবেন  । আর আপনি  চাইলে নৌকায় বা ক্যাম্পিং করে রাত পার করে দিতে পারবেন। তবে এ ক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টা মাথায় রেখে থাকতে হবে।

আরও পড়ুনঃ কাপ্তাই লেক রাঙামাটি ভ্রমণ গাইড

কিশোরগঞ্জ আবাসিক হোটেল ও রিসোর্ট

হোটেল উজানভাটিঃ স্টেশন রোড, কিশোরগঞ্জ। এখানে নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ২৩ টি, এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০৮ টি, নন-এসি  ডাবল বেড রুম ০৬ টি,  এসি ডাবল বেড ‍রুম০৩ টি,  ডিলাক্স এসি রুম: ০৩ টি,  সুপার ডিলাক্স এসি রুম: ০২ টি। যোগাযোগ 01743-718718

রিভারভিউ হোটেলঃ স্টেশন রোড, কিশোরগঞ্জ। এখানে নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ৭ টি, এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০৯ টি, নন-এসি  ডাবল বেড রুম ০২ টি,  এসি সেমি ডিলাক্স ০২ টি,  ডিলাক্স এসি রুম: ০২ টি,  সুপার ডিলাক্স এসি রুম: ০২ টি। যোগাযোগ  01754-231267

ক্যাসেল সালাম ইনঃ বড়বাজার, কিশোরগঞ্জ। নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০৫ টি,  এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০৩ টি, নন-এসি ডাবল বেড রুম ০২ টি, এসি ডাবল বেড ‍রুম ০২ টি। যোগাযোগ 01719-287064 

নিরালা হোটেলঃ ঈশা খাঁ রোড, কিশোরগঞ্জ। নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ১২ টি,  নন-এসি ডাবল বেড রুম  ০৮ টি,  এসি ডাবল বেড ‍রুম ০২ টি। যোগাযোগ 01775-7245580, 1759-014554 

হোটেল পার্কঃ ঈশা খাঁ শপিং কমপ্লেক্স ( ৩য় তলা) রথখলা, কিশোরগঞ্জ। নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০২ টি,  এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০১ টি, নন-এসি ডাবল বেড রুম  ০৫ টি, নন-এসি ডাবল বেড ‍রুম ০২ টি, এসি ডিলাক্স রুম: ০১ টি। যোগাযোগ 01865-676239, 01911-237822

গাংচিল হোটেলঃস্টেশন রোড, কিশোরগঞ্জ। নন-এসি সিঙ্গেল বেড রুম ১২ টি, এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০২ টি, নন-এসি ডাবল বেড রুম ০৪ টি, এসি ডাবল বেড ‍রুম ০২ টি। যোগাযোগ 01724245155

হোটেল রয়েল প্যালেসঃ এমএম শপিং কমপ্লেক্স গৌরাঙ্গ বাজার, কিশোরগঞ্জ। নন এসি সিঙ্গেল বেড রুম ০৪ টি, নন এসি ডাবল বেড রুম ০৮ টি, এসি ডাবল বেড ‍রুম ০৩ টি। যোগাযোগ 01742-591117, 01629-76453 

পাগলা মসজিদ আসেপাশের দর্শনীয় স্থান

কিশোরগঞ্জ জেলার উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক ও দর্শনীয় স্থাপনের মধ্যে আছে শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান, কবি চন্দ্রাবতীর মন্দির, গাঙ্গাটিয়া জমিদার বাড়ি, কিশোরগঞ্জ লেক পার্ক, ঈশা খাঁর জঙ্গলবাড়ি দূর্গ, বালিখলা, মিঠামইন হাওর ও নিকলী হাওর ইত্যাদি। 


পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন
error: Content is protected !!