Site icon ভ্রমণপিপাসু

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী বিরিশিরি দূর্গাপুর

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী (Ethnic Cultural Academy) নেত্রকোনা জেলা থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে দূর্গাপুরের বিরিশিরিতে অবস্থিত। এই কালচারাল একাডেমী একটি স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান। এটি মূলত বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে বসবাসরত বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ করার লক্ষ্যে এই উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের নিজস্ব সাংস্কৃতি, ভাষা, সামাজিক প্রথা, পোশাক- পরিচ্ছদ, খাদ্যাভাস, আচার- অনুষ্ঠান ও ঐতিহ্য দ্বারা সমৃদ্ধ উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী। কালের বিবর্তনের সাথে সাথে তাদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের অনেকটাই হারিয়ে যাওয়ার উপক্রম হচ্ছিল। বাংলাদেশের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের সংস্কৃতি বিশ্ব পরিমণ্ডলে তুলে ধরার লক্ষে ১৯৭৭ সালে সংস্কৃতি মন্ত্রাণালয়ের একটি বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় ৩.২১ একর জায়গার উপর প্রতিষ্ঠা করা হয় এই উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী। বর্তমানে এই কালচারাল একাডেমী “ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক আইন” অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে।

বিভিন্ন ধরণের গাছ-গাছালীর সমন্বয়ে সাজানো এই উপজাতীয় কালচারাল একাডেমীতে রয়েছে সংস্কৃতি, জাদুঘর, গবেষণা, লাইব্রেরী,  প্রভৃতি ৪টি শাখা। দোতালার উপজাতীয় মিউজিয়ামে  ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের জীবন যাত্রার বিভিন্ন নিদর্শন ও ব্যবহৃত জিনিপত্র সংরক্ষণ করে রাখা আছে এই কালচারাল একাডেমীতে। এছাড়া এই একাডেমীর ক্যাম্পাসে রয়েছে একটি অডিটোরিয়াম এবং গেস্ট হাউজ। প্রতিবছর উপজাতীয়দের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রচুর লোক আসে এই কালচারাল একাডেমীতে।

প্রবেশ মূল্য ও সময়সূচী

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমীতে প্রবেশ মূল্য মাত্র ২ টাকা, আর জাদুঘরে প্রবেশ মূল্য মাত্র ১০ টাকা। একাডেমীর জাদুঘর সপ্তাহে ৫দিন খোলা থাকে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার।

আরও পড়ুনঃ রাজবন বিহার রাঙ্গামাটি ভ্রমণ গাইড

উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী যাবার উপায়

ঢাকার মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে নেত্র, শাহজালাল সহ বিভিন্ন পরিবহণের বাসে নেত্রকোনা (Netrokona) যেতে পারবেন। নেত্রকোনা থেকে লোকাল বাসে বা সিএনজি করে দূর্গাপুর এসে রিকশায় করে উপজাতীয় কালচারাল একাডেমী পৌঁছাতে পারবেন। আবার ময়মনসিংহ থেকেও বাসে করে শ্যামগঞ্জ হয়ে উৎরাইল বাজারের কাছে অবস্থিত বিরিশিরি ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমী যাওয়া যায়। এছাড়া ঢাকা থেকে ট্রেনে দূর্গাপুরের জারিয়া ষ্টেশনে নেমে অটোরিকশা বা সিএনজিতে কালচারাল একাডেমীতে যেতে পারবেন।

বিরিশিরি দূর্গাপুর কোথায় থাকবেন

বিরিশিরিতে থাকার জন্য এখনও খুব ভালো মানের রিসোর্ট বা হোটেল গড়ে উঠেনি। তবে এখানে রাত্রি যাপন করতে চাইলে থাকতে হবে জেলাপরিষদ ডাক বাংলোতে। এছাড়া এখানে মধ্যম মানের কিছু হোটেল আছে চাইলে কম খরচে থাকতে পারবেন।

বিরিশিরি হোটেল ও রিসোর্ট

সুমেশ্বরী লাক্সারী হোটেল – থানা রোড, মুক্তারপাড়া দুর্গাপুর, নেত্রকোনা যোগাযোগ 01719-437888 

স্বর্ণা গেষ্ট হাউজ – বাস স্ট্যান্ডের সাথে যোগাযোগ 01748-964322

বিচিত্রা গেষ্ট হাউজ – বাস স্ট্যান্ডের সাথে যোগাযোগ 01793-695945

আমাদের বাড়ি রিসোর্ট – বিজয়পুর সাদা মাটির পাহাড়ের কাছে যোগাযোগ 01711-071177, 01818-664748

সুসং হোটেল – দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01914-791254

হোটেল গুলশান – দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01711-150807

হোটেল জবা – দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01711-186708, 01753-154617

নদীবাংলা গেষ্ট হাউজ – দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01771-893570, 01713-540542

জেলা পরিষদ ডাক বাংলা – দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01725-571795

হোটেল নিরালা –  দুর্গাপুর,নেত্রকোণা যোগাযোগ 01712-786798

ওয়াই.ডব্লিউ.সি.এ রেস্ট হউস –  বিরিশিরি, দূর্গাপুর যোগাযোগ 01711-027901

বিরিশিরি দূর্গাপুর কোথায় খাবেন

বিরিশিরিতে ঘুরতে আসার সময় হালকা কিছু খাবার সাথে রাখতে পারেন কারণ এখানে যত্রতত্র খাবারের কিছু পাওয়া যায় না। এখানে মধ্যম মানের কিছু দেশিও খাবার হোটেল বা রেস্টুরেন্ট রয়েছে যেখানে ভাত, মাছ, ডাল, বর্তা ও মাংসের পাশাপাশি বকের মাংসও পাওয়া যায়। দূর্গাপুরে হোটেলগুলুর মধ্যে রয়েছে নিরালা, হোটেল দুলাল ও নিরিবিলি রেস্তোরাঁর  মতো বেশ কিছু খাবারের হোটেল। সুযোগ ও সময় পেলে নেত্রকোনার জনপ্রিয় বালিশ মিষ্টির স্বাদ নিতে ভুলবেন না।


পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন
Exit mobile version